ঢাকা ০৯:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম ::
জমকালো আয়োজনে শ্রীমঙ্গলে অনুষ্ঠিত হলো এসবিএ’র ব্যান্ড ফেস্টিভ্যাল-১০  আগামীকাল ২৫ এপ্রিল বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি সিলেট জেলা শাখার অভিষেক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রীর সাথে ঢাকাস্থ ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ দূতাবাসের পদক্ষেপে মিয়ানমারের কারাগার থেকে ফিরছেন ১৭৩ বাংলাদেশি সুনামগঞ্জে ৭ এপিবিএন এর অভিযানে ১টি চোরাই মোটরসাইকেলসহ একজন আটক সদর উপজেলা নির্বাচনে অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিকের নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন মেলান্দহে ট্রাক ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে সাত বৎসরের এক শিশু নিহত সিলেটে ডিবি পুলিশের অভিযানে জুয়া খেলার সামগ্রীসহ ১০ জন জুয়ারী গ্রেফতার সিলেটে পুলিশের অভিযানে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা ট্যাবলেট সহ ১ জন আটক লালাবাজার বিদ্যালয় ও কলেজের ‘রূপকল্প ২০৩০’ প্রণয়নে সুধীজনের মতবিনিময়

আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নেতৃত্বে সিলেটে ব্যাপক উন্নয়ন করা হবে : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

আহমদ নাহিদ
  • আপডেট সময় : ০৮:২৪:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৯৮ বার পড়া হয়েছে
Spread the love

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলাম বলেছেন, জন আকাঙ্ক্ষা পূরণের জন্য যেকোনো দলের কর্মসূচিকে স্বাগত জানালেও ধংসাত্মক কার্যক্রম দমন করা হবে। কোনো ব্যাক্তি, গোষ্ঠী বা দল যদি ধ্বংসাত্মক ও গণবিরোধী কোনো কার্যক্রম করে, তাহলে সরকার সংবিধান অনুযায়ী কঠোরভাবে তা দমন করবে।

মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলাম শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০ টায় সাগরদীঘিরপাড় ওয়াকওয়ে পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন।

সিলেটের উন্নয়নের সরকার সবসময় আন্তরিক উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সীমাবদ্ধতা স্বত্বেও সিলেটের জন্য প্রয়োজনীয় বরাদ্দ অনুমোদন করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী একজন সঠিক লোককে লন্ডন থেকে এনে দায়িত্ব দিয়েছেন। আমাদের দেশে দায়িত্ব নিয়ে কাজ করার লোকের বড়ই অভাব, এক্ষেত্রে সিলেটের মেয়র মো.আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী একজন দায়িত্বশীল মানুষ।

তিনি বলেন, যে যাই বলুক না কেনো তাঁর সাথে আমার ব্যক্তিগতভাবে কথা হয়েছে। কথা হওয়ার পরে আমি বুঝতে পেরেছি, একজন সঠিক ব্যক্তিকে প্রধানমন্ত্রী খোঁজে বের করেছেন। আমি মনে করি এরকম একজন লোককে দায়িত্ব দেয়ার জন্য সিলেটবাসী অনেক সুভাগ্যবান।

একটি পরিচন্ন স্মার্ট সিলেট নগরী গড়তে মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর প্রশংসা করে মন্ত্রী বলেন, হযরত শাহজালাল (র.) ও হযরত শাহপরাণ (র.) এর স্মৃতিবিজরিত আধ্যাত্বিক এই নগরীকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও আলাদা মুল্যায়ন করেন, এজন্য তিনি এবারও নির্বাচনী কার্যক্রম সিলেট থেকেই শুরু করেছেন। এই নগরীর উন্নয়নে সরকার থেকে সব ধরণের সহযোগিতা করা হবে।

তিনি বলেন, সিসিকের নির্বাচনের পর জাতীয় নির্বাচনের কারণে স্থানীয় সরকারের অধিনে কাজগুলো বন্ধ ছিলো, মাত্র কাজ শুরু হয়েছে, এরই মধ্যে যেসব কাজ মেয়র মো.আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী অনেক কাজ হাতে নিয়েছেন। এই সরকারের আমলেই আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নেতৃত্বে সিলেটে ব্যাপক উন্নয়ন করা হবে।

ওয়াকওয়ে পরিদর্শনকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও ড.একে আব্দুল মোমেন, সিলেট সিটি কর্পেরেশনের মেয়র মো.আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহম্মদ ইব্‌রাহিম, সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান সহ সিসিকের কাউন্সিলর ও অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলাম শনিবার সকাল ৮টায় ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হয়ে সিলেট আসেন।

এসময় তাঁকে স্বাগত জানান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী এমপি, সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, সিলেট সিটি কর্পেরেশনের মেয়র মো.আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান।

একই ফ্লাইটে সিলেটে আসেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ড.একে আব্দুল মোমেন।

সাগরদীঘিরপাড় ওয়াকওয়ে পরিদর্শনের পরে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক স্থাপিত অক্সিজেন প্ল্যান্টের শুভ উদ্বোধন করেন তিনি।

অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজিরবাজার বৈঠা খাল পরিদর্শন, নবনির্মিত কদমতলী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল পরিদর্শন, লালমাটিয়া ডাম্পিং গ্রাউন্ডে সিসিকের এম.আর.এফ প্ল্যান্ট পরিদর্শন ও ফলক উন্মোচন, সিসিক পরিচালিত কুমারপাড়াস্থ ওসমান মিয়া মার্চেন্ট মা ও শিশু হাসপাতালের শুভ উদ্বোধন, আরবান রেসিলিয়েন্সের আওতায় নির্মিত নগর ভবনের ৬ষ্ঠ তলায় ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার পরিদর্শন।

সিটি কর্পোরেশনের চলমান উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি ও জলাবদ্ধতা নিরসনে গৃহিত কার্যক্রম পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান ও জালালাবাদ পার্কে সিসিক কর্তৃক আয়োজিত বসন্ত উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন তিনি।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রীর সিলেট আগমন উপলক্ষে দুপুর আড়াইটায় দক্ষিণ সুরমার চন্ডিপুলস্থ ময়ুরকুঞ্জ কনভেনশন হলে এক নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান করেন। এতে সভাপতিত্ব করবেন সিসিক মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নেতৃত্বে সিলেটে ব্যাপক উন্নয়ন করা হবে : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৮:২৪:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
Spread the love

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলাম বলেছেন, জন আকাঙ্ক্ষা পূরণের জন্য যেকোনো দলের কর্মসূচিকে স্বাগত জানালেও ধংসাত্মক কার্যক্রম দমন করা হবে। কোনো ব্যাক্তি, গোষ্ঠী বা দল যদি ধ্বংসাত্মক ও গণবিরোধী কোনো কার্যক্রম করে, তাহলে সরকার সংবিধান অনুযায়ী কঠোরভাবে তা দমন করবে।

মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলাম শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০ টায় সাগরদীঘিরপাড় ওয়াকওয়ে পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন।

সিলেটের উন্নয়নের সরকার সবসময় আন্তরিক উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সীমাবদ্ধতা স্বত্বেও সিলেটের জন্য প্রয়োজনীয় বরাদ্দ অনুমোদন করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী একজন সঠিক লোককে লন্ডন থেকে এনে দায়িত্ব দিয়েছেন। আমাদের দেশে দায়িত্ব নিয়ে কাজ করার লোকের বড়ই অভাব, এক্ষেত্রে সিলেটের মেয়র মো.আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী একজন দায়িত্বশীল মানুষ।

তিনি বলেন, যে যাই বলুক না কেনো তাঁর সাথে আমার ব্যক্তিগতভাবে কথা হয়েছে। কথা হওয়ার পরে আমি বুঝতে পেরেছি, একজন সঠিক ব্যক্তিকে প্রধানমন্ত্রী খোঁজে বের করেছেন। আমি মনে করি এরকম একজন লোককে দায়িত্ব দেয়ার জন্য সিলেটবাসী অনেক সুভাগ্যবান।

একটি পরিচন্ন স্মার্ট সিলেট নগরী গড়তে মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর প্রশংসা করে মন্ত্রী বলেন, হযরত শাহজালাল (র.) ও হযরত শাহপরাণ (র.) এর স্মৃতিবিজরিত আধ্যাত্বিক এই নগরীকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও আলাদা মুল্যায়ন করেন, এজন্য তিনি এবারও নির্বাচনী কার্যক্রম সিলেট থেকেই শুরু করেছেন। এই নগরীর উন্নয়নে সরকার থেকে সব ধরণের সহযোগিতা করা হবে।

তিনি বলেন, সিসিকের নির্বাচনের পর জাতীয় নির্বাচনের কারণে স্থানীয় সরকারের অধিনে কাজগুলো বন্ধ ছিলো, মাত্র কাজ শুরু হয়েছে, এরই মধ্যে যেসব কাজ মেয়র মো.আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী অনেক কাজ হাতে নিয়েছেন। এই সরকারের আমলেই আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নেতৃত্বে সিলেটে ব্যাপক উন্নয়ন করা হবে।

ওয়াকওয়ে পরিদর্শনকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও ড.একে আব্দুল মোমেন, সিলেট সিটি কর্পেরেশনের মেয়র মো.আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহম্মদ ইব্‌রাহিম, সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান সহ সিসিকের কাউন্সিলর ও অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলাম শনিবার সকাল ৮টায় ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হয়ে সিলেট আসেন।

এসময় তাঁকে স্বাগত জানান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী এমপি, সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, সিলেট সিটি কর্পেরেশনের মেয়র মো.আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান।

একই ফ্লাইটে সিলেটে আসেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ড.একে আব্দুল মোমেন।

সাগরদীঘিরপাড় ওয়াকওয়ে পরিদর্শনের পরে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক স্থাপিত অক্সিজেন প্ল্যান্টের শুভ উদ্বোধন করেন তিনি।

অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজিরবাজার বৈঠা খাল পরিদর্শন, নবনির্মিত কদমতলী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল পরিদর্শন, লালমাটিয়া ডাম্পিং গ্রাউন্ডে সিসিকের এম.আর.এফ প্ল্যান্ট পরিদর্শন ও ফলক উন্মোচন, সিসিক পরিচালিত কুমারপাড়াস্থ ওসমান মিয়া মার্চেন্ট মা ও শিশু হাসপাতালের শুভ উদ্বোধন, আরবান রেসিলিয়েন্সের আওতায় নির্মিত নগর ভবনের ৬ষ্ঠ তলায় ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার পরিদর্শন।

সিটি কর্পোরেশনের চলমান উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি ও জলাবদ্ধতা নিরসনে গৃহিত কার্যক্রম পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান ও জালালাবাদ পার্কে সিসিক কর্তৃক আয়োজিত বসন্ত উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন তিনি।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রীর সিলেট আগমন উপলক্ষে দুপুর আড়াইটায় দক্ষিণ সুরমার চন্ডিপুলস্থ ময়ুরকুঞ্জ কনভেনশন হলে এক নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান করেন। এতে সভাপতিত্ব করবেন সিসিক মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।