ঢাকা ০৪:৪৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আজব সুখ

স্বামীকে ৩৫ নারীর সঙ্গ পাইয়ে দিয়ে নিজেকে সুখি দাবি অস্ট্রেলিয়ান তরুণীর !

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
  • আপডেট সময় : ০৯:৩১:১২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪ ১৭ বার পড়া হয়েছে
Spread the love

দাম্পত্য জীবনে সুখী হওয়ার উপায় কী? সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ান এক তরুণী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাগ করে নিলেন সুখী দাম্পত্য লাভের আজব উপায়। 

তরুণীর দাবি, বিগত কয়েক বছরে তিনি ৩৫ জন অন্য নারীর সঙ্গে নিজের স্বামীকে ভাগ করে নিয়েছেন। আর সেই কারণেই নাকি তার বিবাহিত জীবন এতটা সুখের হয়েছে।

ইনস্টাগ্রামে হানি ব্রুকস নামে ওই তরুণীর দাবি, স্বামীর ইচ্ছায় নয়, তার ইচ্ছাতেই তাদের শোয়ার ঘরে অন্য নারীর প্রবেশ করেছেন। স্বামীর সঙ্গে এক ঘরে অন্য মহিলাকেও দেখতে তার নাকি কোনো সমস্যা হয় না। 

হানি বলেন, ‘আমাদের বিয়ের পরে অনেকেই বলতেন, আমাদের বিয়ে নাকি খুব বেশি দিন টিকবে না। আমদের দেখে নাকি সুখী মনে হয় না। এই ধারণাগুলি শুনতে আমার বিরক্ত লাগত। আমি ওপেন ম্যারেজের ধারণায় বিশ্বাসী। বর আমার পাশাপাশি অন্য নারীর সঙ্গেও শারীরিক সম্পর্ক রাখতেই পারে, শুধু সে বিষয়ে আমার জানা থাকলেই হলো।’

হানি মনে করেন, ‘ওপেন ম্যারেজের ধারণাই তাদের সম্পর্ককে টিকিয়ে রেখেছে। আমার এই প্রস্তাবে প্রথম থেকেই আমার বর রাজি ছিলেন। আমরা মনে করি, সুখে থাকাটাই আসল ব্যাপার। সম্পর্কে একে অপরকে না ঠকালেই হলো।’

হানি পেশায় একজন সমাজমাধ্যম প্রভাবী। তার এই ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পরে তাকে অনেক কটাক্ষের সম্মুখীন হতে হয়েছে। কেউ বলেছেন, ‘তুমি তোমার স্বামীকে সুখ দিতে পারো না বলেই এই পথ বেছে নিয়েছ।’ কেউ আবার বলেছেন, ‘আমার সঙ্গীকে অন্য কারও সঙ্গে ভাগ করে নেওয়ার কথা স্বপ্নেও ভাবতে পারব না।’ অনেকেই আবার হানির সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছেন। একজন লিখেছেন, ‘এটা তোমার জীবন, তুমি কীভাবে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখবে, তা একান্তই তোমার উপর।’

তথ্যসূত্র: দৈনিক জনকণ্ঠ ডটকম

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

আজব সুখ

স্বামীকে ৩৫ নারীর সঙ্গ পাইয়ে দিয়ে নিজেকে সুখি দাবি অস্ট্রেলিয়ান তরুণীর !

আপডেট সময় : ০৯:৩১:১২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪
Spread the love

দাম্পত্য জীবনে সুখী হওয়ার উপায় কী? সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ান এক তরুণী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাগ করে নিলেন সুখী দাম্পত্য লাভের আজব উপায়। 

তরুণীর দাবি, বিগত কয়েক বছরে তিনি ৩৫ জন অন্য নারীর সঙ্গে নিজের স্বামীকে ভাগ করে নিয়েছেন। আর সেই কারণেই নাকি তার বিবাহিত জীবন এতটা সুখের হয়েছে।

ইনস্টাগ্রামে হানি ব্রুকস নামে ওই তরুণীর দাবি, স্বামীর ইচ্ছায় নয়, তার ইচ্ছাতেই তাদের শোয়ার ঘরে অন্য নারীর প্রবেশ করেছেন। স্বামীর সঙ্গে এক ঘরে অন্য মহিলাকেও দেখতে তার নাকি কোনো সমস্যা হয় না। 

হানি বলেন, ‘আমাদের বিয়ের পরে অনেকেই বলতেন, আমাদের বিয়ে নাকি খুব বেশি দিন টিকবে না। আমদের দেখে নাকি সুখী মনে হয় না। এই ধারণাগুলি শুনতে আমার বিরক্ত লাগত। আমি ওপেন ম্যারেজের ধারণায় বিশ্বাসী। বর আমার পাশাপাশি অন্য নারীর সঙ্গেও শারীরিক সম্পর্ক রাখতেই পারে, শুধু সে বিষয়ে আমার জানা থাকলেই হলো।’

হানি মনে করেন, ‘ওপেন ম্যারেজের ধারণাই তাদের সম্পর্ককে টিকিয়ে রেখেছে। আমার এই প্রস্তাবে প্রথম থেকেই আমার বর রাজি ছিলেন। আমরা মনে করি, সুখে থাকাটাই আসল ব্যাপার। সম্পর্কে একে অপরকে না ঠকালেই হলো।’

হানি পেশায় একজন সমাজমাধ্যম প্রভাবী। তার এই ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পরে তাকে অনেক কটাক্ষের সম্মুখীন হতে হয়েছে। কেউ বলেছেন, ‘তুমি তোমার স্বামীকে সুখ দিতে পারো না বলেই এই পথ বেছে নিয়েছ।’ কেউ আবার বলেছেন, ‘আমার সঙ্গীকে অন্য কারও সঙ্গে ভাগ করে নেওয়ার কথা স্বপ্নেও ভাবতে পারব না।’ অনেকেই আবার হানির সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছেন। একজন লিখেছেন, ‘এটা তোমার জীবন, তুমি কীভাবে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখবে, তা একান্তই তোমার উপর।’

তথ্যসূত্র: দৈনিক জনকণ্ঠ ডটকম