ঢাকা ০৮:৩৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম ::
ত্রাণের অভাব হবে না, সাহস নিয়ে দূর্যোগ মোকাবেলা করুন: দুর্যোগ ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মহিবুল ইসলাম সিলেটে মুক্তিপণ না পেয়ে ছাদ থেকে ফেলে এক যুবককে হত্যার অভিযোগ ডাঃ জোবাইদা রহমানের জন্মদিনে সিলেটে বন্যার্তদের মাঝে খাবার বিতরণ সিলেটের বন্যা প্রতিরোধে স্থায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে: মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী পাওয়ার নিউজ বিডি’র উপদেষ্টা যুক্তরাজ্য প্রবাসী মো: আব্দুল গনি’র ঈদ শুভেচ্ছা বিএনপিতে রদবদল; সিলেট বিভাগে দায়িত্ব পেলেন জি কে গৌছ ও মিফতাহ্ সিদ্দিকী বাবার বিচার চেয়ে ডরিনের পাশে থাকা সাইদুল করিম মিন্টুই এমপি আনার হত্যায় গ্রেফতার ! সিলেটে আর্মড পুলিশের অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার ‘ছাদ থেকে পড়ে’ ভাইরাল সেই শিশু হজযাত্রীর মৃত্যু ! ১ লাখ ১ টাকা কাবিনে শ্রীলঙ্কান তরুণীকে বিয়ে করলেন দুবাই প্রবাসী ফটিকছড়ির মোরশেদ

বই বের করতে দেরী করায় শিক্ষক বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীর চুল টেনে ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ !

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৮:৩৪:৫১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৪ ১২৪ বার পড়া হয়েছে

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ব্যাগ থেকে বই বের করতে দেরি হওয়ায় ফারহানা খাতুন নামে এক শিশু শিক্ষার্থীর দুই পাশের চুল টেনে ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ রতনের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে ওই শিক্ষার্থীর বাবা জিল্লুর রহমান কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে শিশু শিক্ষার্থীর বাবা জিল্লুর রহমান উল্লেখ করেছেন, তার মেয়ে দূর্গাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির একজন ছাত্রী। বুধবার (২৪ জানুয়ারি) ক্লাস চলাকালীন সময়ে ব্যাগ থেকে বই বের করতে দেরি করায় শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ রতন তার মেয়ের দুই কানের উপর থাকা চুল ধরে উঁচু করে রাখেন। একপর্যায়ে চুল ছিঁড়ে ওই শিক্ষার্থী মাটিতে পড়ে যায় এবং অসুস্থ হয়ে পড়ে।

জিল্লুর রহমান জানান, তার মেয়েকে সামান্য কারণে অমানুষিক নির্যাতন করেছেন শিক্ষক রতন। আবার নির্যাতনের পর মেয়ের হাতে ৫ টাকা দিয়ে ওই শিক্ষক বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য বলে। এমন নির্যাতন করলে শিশুরা স্কুলের প্রতি আগ্রহ হারাবে। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে শাস্তির দাবি করেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ রতন বলেন, ওই শিক্ষার্থীকে আমি অনেক স্নেহ করি। তাকে আদর করতে গিয়ে তার চুলে একটু টান লেগে এমনটা হয়েছে। তাছাড়া সামাজিক দ্বন্দ্বের কারণে আমার নামে এমন অভিযোগ করা হয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মাহমুদ হাসান বলেন, এমন অভিযোগ পেয়ে ইতিমধ্যে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলেছি। আগামী রোববার (২৮ জানুয়ারি) আমি নিজে বিদ্যালয়ে যাবো এবং অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে যথাযথ থ্য প্রমাণ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বই বের করতে দেরী করায় শিক্ষক বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীর চুল টেনে ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ !

আপডেট সময় : ০৮:৩৪:৫১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৪

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ব্যাগ থেকে বই বের করতে দেরি হওয়ায় ফারহানা খাতুন নামে এক শিশু শিক্ষার্থীর দুই পাশের চুল টেনে ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ রতনের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে ওই শিক্ষার্থীর বাবা জিল্লুর রহমান কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে শিশু শিক্ষার্থীর বাবা জিল্লুর রহমান উল্লেখ করেছেন, তার মেয়ে দূর্গাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির একজন ছাত্রী। বুধবার (২৪ জানুয়ারি) ক্লাস চলাকালীন সময়ে ব্যাগ থেকে বই বের করতে দেরি করায় শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ রতন তার মেয়ের দুই কানের উপর থাকা চুল ধরে উঁচু করে রাখেন। একপর্যায়ে চুল ছিঁড়ে ওই শিক্ষার্থী মাটিতে পড়ে যায় এবং অসুস্থ হয়ে পড়ে।

জিল্লুর রহমান জানান, তার মেয়েকে সামান্য কারণে অমানুষিক নির্যাতন করেছেন শিক্ষক রতন। আবার নির্যাতনের পর মেয়ের হাতে ৫ টাকা দিয়ে ওই শিক্ষক বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য বলে। এমন নির্যাতন করলে শিশুরা স্কুলের প্রতি আগ্রহ হারাবে। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে শাস্তির দাবি করেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ রতন বলেন, ওই শিক্ষার্থীকে আমি অনেক স্নেহ করি। তাকে আদর করতে গিয়ে তার চুলে একটু টান লেগে এমনটা হয়েছে। তাছাড়া সামাজিক দ্বন্দ্বের কারণে আমার নামে এমন অভিযোগ করা হয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মাহমুদ হাসান বলেন, এমন অভিযোগ পেয়ে ইতিমধ্যে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলেছি। আগামী রোববার (২৮ জানুয়ারি) আমি নিজে বিদ্যালয়ে যাবো এবং অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে যথাযথ থ্য প্রমাণ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।