ঢাকা ০৪:৫১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে শিশুসন্তানকে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলেন চাঁদপুরের রিমা

চাঁদপুর প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০১:৫৯:৫৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৪ ১৮ বার পড়া হয়েছে
Spread the love

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার কাজিরগাঁও রেলপথে চট্টগ্রামগামী সাগরিকা ট্রেনের নিচে শিশুসন্তানকে নিয়ে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক মা।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার ২০ মিনিটের মধ্যে আত্মহত্যার খবর পান স্বজনেরা।

নিহতরা হলেন উপজেলার স্বর্ণা গ্রামের হাওলাদার বাড়ির মাসুদুজ্জামান হাওলাদারের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার রিমা (২৪) ও তার ১৬ মাস বয়সী ছেলে।

চাঁদপুর রেলওয়ে থানা পুলিশের ইনচার্জ মাসুদ আলম বলেন, ‘বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে চাঁদপুর থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে মারা যান মা ও তার শিশুসন্তান। এ ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। সুরতহাল রিপোর্ট করার পর ময়নাতদন্তের জন্য দুজনের মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

জানা গেছে, গত ২৮ মার্চ হাজীগঞ্জ থানায় প্রবাসী স্বামী মাসুদুজ্জামান হাওলাদারের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দেয় নিহত ওই গৃহবধূ। অভিযোগে স্বামী প্রবাসে থাকা অবস্থায় তালাক দেওয়ার পরও দেশে এসে মোবাইল ফোনে প্রাণনাশের হুমকি দেয় বলে উল্লেখ করা হয়। অভিযোগটির তদন্তে কাজ করেন হাজীগঞ্জ থানা উপপরিদর্শক আবদুর রহমান।

এদিকে স্বজনেরা বলছেন, ‘স্বামী মাসুদুজ্জামান দেশে এসে বিষয়টি সুরাহা না করে প্রবাসে চলে যাওয়ায় আত্মহননের সিদ্ধান্ত নেয় তাহমিনা। সে বিয়ের পর থেকে হাজীগঞ্জ উপজেলার ধড্ডা গ্রামে বাবার বাড়িতে বসবাস করে আসছিল। তাদের চার বছরের এক কন্যাসন্তান রয়েছে।’

মৃত্যুর আগে ফেসবুকে তাহমিনা লেখেন, ‘আমি তাহমিনা আক্তার রিমা। আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী না। আমার মেয়েটারে সবাই দেখে রাখবেন; ও যেন ভালো থাকে, সুস্থ থাকে। আমার মা-বাবাকে কেউ কোনও দোষারোপ করবেন না। আমার জীবনের সব সিদ্ধান্ত আমি নিজেই নিয়েছি। মা, আব্বু, রিপা জুবায়ের, সুফিয়ান ভাই, মামা-মামি আমার মেয়েটারে দেইখা রাইখেন আপনারা। আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী না।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে শিশুসন্তানকে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলেন চাঁদপুরের রিমা

আপডেট সময় : ০১:৫৯:৫৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৪
Spread the love

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার কাজিরগাঁও রেলপথে চট্টগ্রামগামী সাগরিকা ট্রেনের নিচে শিশুসন্তানকে নিয়ে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক মা।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার ২০ মিনিটের মধ্যে আত্মহত্যার খবর পান স্বজনেরা।

নিহতরা হলেন উপজেলার স্বর্ণা গ্রামের হাওলাদার বাড়ির মাসুদুজ্জামান হাওলাদারের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার রিমা (২৪) ও তার ১৬ মাস বয়সী ছেলে।

চাঁদপুর রেলওয়ে থানা পুলিশের ইনচার্জ মাসুদ আলম বলেন, ‘বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে চাঁদপুর থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে মারা যান মা ও তার শিশুসন্তান। এ ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। সুরতহাল রিপোর্ট করার পর ময়নাতদন্তের জন্য দুজনের মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

জানা গেছে, গত ২৮ মার্চ হাজীগঞ্জ থানায় প্রবাসী স্বামী মাসুদুজ্জামান হাওলাদারের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দেয় নিহত ওই গৃহবধূ। অভিযোগে স্বামী প্রবাসে থাকা অবস্থায় তালাক দেওয়ার পরও দেশে এসে মোবাইল ফোনে প্রাণনাশের হুমকি দেয় বলে উল্লেখ করা হয়। অভিযোগটির তদন্তে কাজ করেন হাজীগঞ্জ থানা উপপরিদর্শক আবদুর রহমান।

এদিকে স্বজনেরা বলছেন, ‘স্বামী মাসুদুজ্জামান দেশে এসে বিষয়টি সুরাহা না করে প্রবাসে চলে যাওয়ায় আত্মহননের সিদ্ধান্ত নেয় তাহমিনা। সে বিয়ের পর থেকে হাজীগঞ্জ উপজেলার ধড্ডা গ্রামে বাবার বাড়িতে বসবাস করে আসছিল। তাদের চার বছরের এক কন্যাসন্তান রয়েছে।’

মৃত্যুর আগে ফেসবুকে তাহমিনা লেখেন, ‘আমি তাহমিনা আক্তার রিমা। আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী না। আমার মেয়েটারে সবাই দেখে রাখবেন; ও যেন ভালো থাকে, সুস্থ থাকে। আমার মা-বাবাকে কেউ কোনও দোষারোপ করবেন না। আমার জীবনের সব সিদ্ধান্ত আমি নিজেই নিয়েছি। মা, আব্বু, রিপা জুবায়ের, সুফিয়ান ভাই, মামা-মামি আমার মেয়েটারে দেইখা রাইখেন আপনারা। আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী না।’