ঢাকা ০৯:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম ::
পাওয়ার নিউজ বিডি’র উপদেষ্টা যুক্তরাজ্য প্রবাসী মো: আব্দুল গনি’র ঈদ শুভেচ্ছা বিএনপিতে রদবদল; সিলেট বিভাগে দায়িত্ব পেলেন জি কে গৌছ ও মিফতাহ্ সিদ্দিকী বাবার বিচার চেয়ে ডরিনের পাশে থাকা সাইদুল করিম মিন্টুই এমপি আনার হত্যায় গ্রেফতার ! সিলেটে আর্মড পুলিশের অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার ‘ছাদ থেকে পড়ে’ ভাইরাল সেই শিশু হজযাত্রীর মৃত্যু ! ১ লাখ ১ টাকা কাবিনে শ্রীলঙ্কান তরুণীকে বিয়ে করলেন দুবাই প্রবাসী ফটিকছড়ির মোরশেদ সিলেট ওসমানী হাসপাতাল `কক্লিয়ার ইমপ্লান্ট’ কার্যক্রমে শতভাগ সফলতা অর্জন দায়িত্ব গ্রহন করেছেন সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক আমিও ৭এপিবিএন’র একজন সদস্য- আইজিপি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন টিলাধসে স্বপরিবারে যুবদল নেতার মৃত্যুতে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের শোক

‘বারবার জাতির সাথে বেঈমানি করে মুনাফিক, নাফরমান হয়ে যাচ্ছি’- এলাহি সোহাগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫০:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৪ ১২৭ বার পড়া হয়েছে

নির্বাচনে ভরাডুবির জন্য চেয়ারম্যান জি এম কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দুজনকেই দায়ী করলেও চুন্নুর প্রতি বেশি ক্ষোভ জাতীয় পার্টির নেতাদের। তাদের অনেকে চুন্নুকে প্রতারক ও বাটপার বলে অভিহিত করেছেন। পাশাপাশি যুগ্ম মহাসচিব রেজাউল করিমেরও তীব্র সমালোচনা করেছেন তারা।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে নির্বাচনে অংশ নেওয়া জাতীয় পার্টির প্রার্থীদের এক মতবিনিময় সভা আয়োজন করা হয়। সেখানে বক্তারা দলের নানা ত্রুটি-বিচ্যুতি নিয়ে আলোচনা করেন। সভার মঞ্চে ছিলেন জাপার কেন্দ্রীয় চার নেতা। নির্বাচনে অংশ নেওয়া জাপার শতাধিক প্রার্থী সভায় অংশ নিয়েছেন বলে আয়োজকরা জানান।

নোয়াখালী-৩ আসনের প্রার্থী এলাহী সোহাগ বলেন, ক্ষোভের কথা বলতে এসেছি। সঙ্গে থাকার আশ্বাস দিয়ে নির্বাচনে নামিয়ে কথা রাখেননি কেন্দ্রীয় নেতারা। এই নির্বাচনে যেতে চাননি ৫৯ জেলার লোক। কারও সঙ্গে জোট করবো না বলে আমাদের ডেকে পরে আসন ভাগাভাগি করে নিজেরা লাভবান হয়েছেন। গুটিকয়েক লোক ভোগ করে আমরা পাই না।

তিনি বলেন, ৫ বছর পর পর মিথ্যা আশ্বাস পাই আমরা। চেয়ারম্যান হওয়ার পর বদলে গেছেন জিএম কাদের। এলাকায় সম্মান নিয়ে চলি। কিন্তু আপনার কারণে তা হারিয়ে ফেলেছি। ভোট চাইতে গেলে মানুষ বলে মাথা বিক্রি করে এসেছি। হঠাৎ একদিন রাতে জানলাম জাপা নির্বাচনে যাবে না। পরদিন বিকেলে শুনলাম যাবে। ২৬ আসনে সমঝোতা হয়ে গেছে। বারবার দেশের মানুষের সঙ্গে বেঈমানি করে মুনাফিক হয়ে যাচ্ছি। জোর করে কাউকে নির্বাচনে নেয়া যায় না। আপনি লোভে পড়ে গেছেন। এক রাতের মধ্যে কিভাবে বিক্রি হয়ে গেলেন আপনারা’বারবার জাতির সাথে বেঈমানি করে মুনাফিক, নাফরমান হয়ে যাচ্ছি’।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

‘বারবার জাতির সাথে বেঈমানি করে মুনাফিক, নাফরমান হয়ে যাচ্ছি’- এলাহি সোহাগ

আপডেট সময় : ১১:৫০:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৪

নির্বাচনে ভরাডুবির জন্য চেয়ারম্যান জি এম কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দুজনকেই দায়ী করলেও চুন্নুর প্রতি বেশি ক্ষোভ জাতীয় পার্টির নেতাদের। তাদের অনেকে চুন্নুকে প্রতারক ও বাটপার বলে অভিহিত করেছেন। পাশাপাশি যুগ্ম মহাসচিব রেজাউল করিমেরও তীব্র সমালোচনা করেছেন তারা।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে নির্বাচনে অংশ নেওয়া জাতীয় পার্টির প্রার্থীদের এক মতবিনিময় সভা আয়োজন করা হয়। সেখানে বক্তারা দলের নানা ত্রুটি-বিচ্যুতি নিয়ে আলোচনা করেন। সভার মঞ্চে ছিলেন জাপার কেন্দ্রীয় চার নেতা। নির্বাচনে অংশ নেওয়া জাপার শতাধিক প্রার্থী সভায় অংশ নিয়েছেন বলে আয়োজকরা জানান।

নোয়াখালী-৩ আসনের প্রার্থী এলাহী সোহাগ বলেন, ক্ষোভের কথা বলতে এসেছি। সঙ্গে থাকার আশ্বাস দিয়ে নির্বাচনে নামিয়ে কথা রাখেননি কেন্দ্রীয় নেতারা। এই নির্বাচনে যেতে চাননি ৫৯ জেলার লোক। কারও সঙ্গে জোট করবো না বলে আমাদের ডেকে পরে আসন ভাগাভাগি করে নিজেরা লাভবান হয়েছেন। গুটিকয়েক লোক ভোগ করে আমরা পাই না।

তিনি বলেন, ৫ বছর পর পর মিথ্যা আশ্বাস পাই আমরা। চেয়ারম্যান হওয়ার পর বদলে গেছেন জিএম কাদের। এলাকায় সম্মান নিয়ে চলি। কিন্তু আপনার কারণে তা হারিয়ে ফেলেছি। ভোট চাইতে গেলে মানুষ বলে মাথা বিক্রি করে এসেছি। হঠাৎ একদিন রাতে জানলাম জাপা নির্বাচনে যাবে না। পরদিন বিকেলে শুনলাম যাবে। ২৬ আসনে সমঝোতা হয়ে গেছে। বারবার দেশের মানুষের সঙ্গে বেঈমানি করে মুনাফিক হয়ে যাচ্ছি। জোর করে কাউকে নির্বাচনে নেয়া যায় না। আপনি লোভে পড়ে গেছেন। এক রাতের মধ্যে কিভাবে বিক্রি হয়ে গেলেন আপনারা’বারবার জাতির সাথে বেঈমানি করে মুনাফিক, নাফরমান হয়ে যাচ্ছি’।