ঢাকা ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম ::
জাতিসংঘের পূর্ণ সদস্য হতে চায় ফিলিস্তিন; ফিলিস্তিন প্রতিনিধি দলের প্রধান রিয়াদ মনসুর সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত ভারতের শিলচরের সাহিত্য-সংস্কৃতি কর্মীদের সিলেটে সৌজন্য সাক্ষাৎ ছড়াকার সুফিয়ান আহমদ চৌধুরী ছড়াশিল্পের অনন্য এক দিকপাল: প্রফেসর হারুনুর রশীদ ডাক্তারের পরামর্শে চার মাস কারও সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন না বিএনপি নেতা খন্দকার মোশাররফ বিবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সাইদুর রহমান রেনুর পিতার নামাজে জানাজা আজ দরগা মাসজিদে সিলেটে ডিবি’র জুয়া বিরোধী বিশেষ অভিযানে জুয়া খেলার সামগ্রীসহ ৬ জুয়ারি আটক সিলেটে ডিবি পুলিশের পৃথক দুটি অভিযানে জুয়া খেলার সামগ্রীসহ ২২ জন জুয়ারি গ্রেফতার গাজীপুরের কোনাবাড়িতে ঝুট গুদামে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচ ইউনিট গাজীপুরে পারিবারিক বিরোধের জেরে মেয়েকে বাবার হত্যার পর আত্মহত্যার চেষ্টা

‘বারবার জাতির সাথে বেঈমানি করে মুনাফিক, নাফরমান হয়ে যাচ্ছি’- এলাহি সোহাগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫০:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৪ ৯৬ বার পড়া হয়েছে

নির্বাচনে ভরাডুবির জন্য চেয়ারম্যান জি এম কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দুজনকেই দায়ী করলেও চুন্নুর প্রতি বেশি ক্ষোভ জাতীয় পার্টির নেতাদের। তাদের অনেকে চুন্নুকে প্রতারক ও বাটপার বলে অভিহিত করেছেন। পাশাপাশি যুগ্ম মহাসচিব রেজাউল করিমেরও তীব্র সমালোচনা করেছেন তারা।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে নির্বাচনে অংশ নেওয়া জাতীয় পার্টির প্রার্থীদের এক মতবিনিময় সভা আয়োজন করা হয়। সেখানে বক্তারা দলের নানা ত্রুটি-বিচ্যুতি নিয়ে আলোচনা করেন। সভার মঞ্চে ছিলেন জাপার কেন্দ্রীয় চার নেতা। নির্বাচনে অংশ নেওয়া জাপার শতাধিক প্রার্থী সভায় অংশ নিয়েছেন বলে আয়োজকরা জানান।

নোয়াখালী-৩ আসনের প্রার্থী এলাহী সোহাগ বলেন, ক্ষোভের কথা বলতে এসেছি। সঙ্গে থাকার আশ্বাস দিয়ে নির্বাচনে নামিয়ে কথা রাখেননি কেন্দ্রীয় নেতারা। এই নির্বাচনে যেতে চাননি ৫৯ জেলার লোক। কারও সঙ্গে জোট করবো না বলে আমাদের ডেকে পরে আসন ভাগাভাগি করে নিজেরা লাভবান হয়েছেন। গুটিকয়েক লোক ভোগ করে আমরা পাই না।

তিনি বলেন, ৫ বছর পর পর মিথ্যা আশ্বাস পাই আমরা। চেয়ারম্যান হওয়ার পর বদলে গেছেন জিএম কাদের। এলাকায় সম্মান নিয়ে চলি। কিন্তু আপনার কারণে তা হারিয়ে ফেলেছি। ভোট চাইতে গেলে মানুষ বলে মাথা বিক্রি করে এসেছি। হঠাৎ একদিন রাতে জানলাম জাপা নির্বাচনে যাবে না। পরদিন বিকেলে শুনলাম যাবে। ২৬ আসনে সমঝোতা হয়ে গেছে। বারবার দেশের মানুষের সঙ্গে বেঈমানি করে মুনাফিক হয়ে যাচ্ছি। জোর করে কাউকে নির্বাচনে নেয়া যায় না। আপনি লোভে পড়ে গেছেন। এক রাতের মধ্যে কিভাবে বিক্রি হয়ে গেলেন আপনারা’বারবার জাতির সাথে বেঈমানি করে মুনাফিক, নাফরমান হয়ে যাচ্ছি’।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

‘বারবার জাতির সাথে বেঈমানি করে মুনাফিক, নাফরমান হয়ে যাচ্ছি’- এলাহি সোহাগ

আপডেট সময় : ১১:৫০:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৪

নির্বাচনে ভরাডুবির জন্য চেয়ারম্যান জি এম কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু দুজনকেই দায়ী করলেও চুন্নুর প্রতি বেশি ক্ষোভ জাতীয় পার্টির নেতাদের। তাদের অনেকে চুন্নুকে প্রতারক ও বাটপার বলে অভিহিত করেছেন। পাশাপাশি যুগ্ম মহাসচিব রেজাউল করিমেরও তীব্র সমালোচনা করেছেন তারা।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে নির্বাচনে অংশ নেওয়া জাতীয় পার্টির প্রার্থীদের এক মতবিনিময় সভা আয়োজন করা হয়। সেখানে বক্তারা দলের নানা ত্রুটি-বিচ্যুতি নিয়ে আলোচনা করেন। সভার মঞ্চে ছিলেন জাপার কেন্দ্রীয় চার নেতা। নির্বাচনে অংশ নেওয়া জাপার শতাধিক প্রার্থী সভায় অংশ নিয়েছেন বলে আয়োজকরা জানান।

নোয়াখালী-৩ আসনের প্রার্থী এলাহী সোহাগ বলেন, ক্ষোভের কথা বলতে এসেছি। সঙ্গে থাকার আশ্বাস দিয়ে নির্বাচনে নামিয়ে কথা রাখেননি কেন্দ্রীয় নেতারা। এই নির্বাচনে যেতে চাননি ৫৯ জেলার লোক। কারও সঙ্গে জোট করবো না বলে আমাদের ডেকে পরে আসন ভাগাভাগি করে নিজেরা লাভবান হয়েছেন। গুটিকয়েক লোক ভোগ করে আমরা পাই না।

তিনি বলেন, ৫ বছর পর পর মিথ্যা আশ্বাস পাই আমরা। চেয়ারম্যান হওয়ার পর বদলে গেছেন জিএম কাদের। এলাকায় সম্মান নিয়ে চলি। কিন্তু আপনার কারণে তা হারিয়ে ফেলেছি। ভোট চাইতে গেলে মানুষ বলে মাথা বিক্রি করে এসেছি। হঠাৎ একদিন রাতে জানলাম জাপা নির্বাচনে যাবে না। পরদিন বিকেলে শুনলাম যাবে। ২৬ আসনে সমঝোতা হয়ে গেছে। বারবার দেশের মানুষের সঙ্গে বেঈমানি করে মুনাফিক হয়ে যাচ্ছি। জোর করে কাউকে নির্বাচনে নেয়া যায় না। আপনি লোভে পড়ে গেছেন। এক রাতের মধ্যে কিভাবে বিক্রি হয়ে গেলেন আপনারা’বারবার জাতির সাথে বেঈমানি করে মুনাফিক, নাফরমান হয়ে যাচ্ছি’।