No icon

নবগঠিত বিশ্বনাথ পৌরসভার প্রশাসক নিয়ে জল্পনা কল্পনা

 

পাওয়ার নিউজ:: প্রবাসী অধ্যুষিত বিশ্বনাথ পৌরসভায় উন্নীত হয়েছে। দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর অবশেষে পুরণ হলো উপজেলাবাসীর প্রত্যাশিত স্বপ্ন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার (২১ অক্টোবর) তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির (নিকার) সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।
এদিকে, দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পৌরসভা ঘোষণার সংবাদ সর্বত্র ছড়িয় পড়লে বিশ্বনাথ উপজেলাবাসীর মাঝে বিরাজ করছে আনন্দের বন্যা। শুরু হয়েছে কে হবেন নতুন প্রশাসক, কাকে নিয়োগ দেয়া হবে এই গুরু দাযিত্বে তাহা নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা কল্পনা উপজেলা জুড়ে I এখন পর্যন্ত যাদের নাম শুনা যাচ্ছে তারা হলেন, বিশ্বনাথ পৌরসভা বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রবীণ রাজনীতিবিদ আলহাজ সুনু মিয়া, বিশ্বনাথ থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ পংকি খান ,বিশ্বনাথ থানা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও সাদেক ছাত্রলীগ নেতা ফারুক আহমদ তবে এখন পর্যন্ত কে হবেন নবগঠিত বিশ্বনাথ পৌরসভার প্রশাসক তাহা দেখার বিষয় I নবগঠিত বিশ্বনাথ পৌরসভার প্রশাসক হিসাবে তৃণমূল নেতৃবৃন্দের দাবী আলহাজ সুনু মিয়া হবেন বিশ্বনাথ পৌরসভার প্রশাসক I
পৌরসভা গঠনের লক্ষ্যে ২০১৮ সালের ৭ জানুয়ারী স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় এর স্থানীয় সরকার বিভাগ পৌর-২ থেকে বিশ্বনাথকে ‘শহর’ হিসেবে গেজেট প্রকাশ করা হয়। 
বাংলাদেশ গেজেট রেজিস্টার নং ডি এ-১ প্রকাশিত বিশ্বনাথ উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের ২২টি মৌজা নিয়ে এ গেজেট প্রকাশ করা হয়। মৌজাগুলো হলো- বিশ্বনাথ ইউনিয়ের আহমদাবাদ মৌজা, পূর্ব জানাইয়া মৌজা, বিদাইলসুপানি মৌজা, কানাইপুর মৌজা, মজলিস ভোগশাইল মৌজা, চান্দসিরকাপন মৌজা, মিরেরচর মৌজা, মশুল্লা মৌজা, সেনারগাঁও মৌজা, ধোপাখোলা মৌজা, তাজপুর মৌজা। দেওকলস ইউনিয়নের আলাপুর মৌজা, ধোপাখোলা মৌজা, দত্তা, অলংকারী ইউনিয়নের পূর্ব জানাইয়া, কামালপুর, ভাগমতপুর, অলংকারী, দৌলতপুর ইউনিয়নের দূযার্কাপন, চরচন্ডি ও রামপাশা ইউনিয়নের পশ্চিম জানাইয়া, মশুল্লা।

সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য শ্রী জয়জিত আচার্য্য জয় পাওয়ার নিউজ টুয়েন্টিফোর ডট কম কে বলেন, ১৯৯৬ সালে আমরা স্থানীয়রা বিশ্বনাথ পৌরসভা বাস্থবায়ন কমিটি গঠন করে আন্দোলন শুরু করি। 
পৌরসভার দাবিতে তখন আমাদের একাধিক সভা-সমাবেশ সহ সরকারের উপর মহলে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। 

সেই সময় স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় বিশ্বনাথকে পৌরসভায় রূপান্তর করার প্রাথমিক প্রক্রিয়া শুরু করে। 
অবশেষে ২১ অক্টোবর ২০১৯  সোমবার প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির (নিকার) সভায় বিশ্বনাথ পৌরসভার অনুমোদন দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরো বলেন ধনেজনে সিলেটের শীর্ষজনপদের একটি প্রবাসী অধ্যুষিত বিশ্বনাথ  । উপজেলা সহ আমাদের দাবি যোগ্য বাক্তিকে নিযুক্ত করা হোক পৌরবাসীর সুযোগ সুবিধা আদায়ের জন্য I       

Comment As:

Comment (0)