No icon

জুম্মার দিনে  মিম্বারে বসে জুমআর পূর্বের বয়ান নয়-দেওবন্দ

মুফতি মোস্তফা ওয়াদুদ কাসেমী : 

জুমআর দিন জুমআর খুৎবার পূর্বে বয়ান করা যায়েজ। তবে সে বয়ানটি খুৎবার মিম্বারে না করে আলাদা চেয়ারে করা উত্তম। জানালেন দারুল উলুম দেওবন্দ।

গত রবিবার (১৯ মে) ‘জুমআর পূর্বে মিম্বারে বসে বয়ান করা কেমন ও এর সুন্নাত তরিকা কি?’ এমন এক প্রশ্নের জবাবে দারুল উলুম দেওবন্দ এ উত্তর প্রদান করে।

দারুল উলুম দেওবন্দের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত জবাবে বলা হয়, জুমআর দিন জুমআর খুৎবার পূর্বে বয়ান করা জায়েজ। সাহাবায়ে কেরাম রা. থেকে এমনটা প্রমাণিত আছে। বর্ণিত আছে, হজরত উমর রা. এর অনুমতি নিয়ে হজরত তামিম দারী রা. জুমআর পূর্বে বয়ান করতেন। মোল্লা আলী কারী রহ. এর ‘আল মাওজুআতুল কুবরা’ এর মুকাদ্দমায় (পৃষ্ঠা-২০, কুতুব খানায়ে নুর মোহাম্মদ করাচি থেকে প্রকাশিত) ইবনে আসাকির এর বরাত দিয়ে এমন বর্ণনা রয়েছে।

এমনিভাবে হযরত আবু হুরায়রা রা. এরও এমন আমল ছিলো। (ফতওয়ায়ে মাহমুদিয়া, খণ্ড-৮, পৃষ্ঠা-২৫৬, প্রশ্ন নাম্বার ৩৭৯৩, ইদারায়ে সিদ্দিক ডাবেল থেকে প্রকাশিত)

তবে এ বয়ান খুৎবার পাঁচ-দশ মিনিট পূর্বে শেষ করে দেয়া উত্তম। যাতে বয়ান চলাকালীন যারা আসবেন তারা বয়ানে শরিক হয়ে যেতে পারেন। এরপর খুৎবার পূর্বে কাবলাল জুমআ বা জুমআর পূর্বের সুন্নাত আদায় করে নিতে পারেন।

জবাবের সর্বশেষ বলা হয়, এ ওয়াজ যেহেতু জুমআর খুৎবা থেকে আলাদা। তাই উত্তম হলো এ ওয়াজ বা বয়ান মিম্বার থেকে সরে আলাদা চেয়ারে বসে বা দাঁড়িয়ে করা। যাতে খুৎবার গুরুত্ত্ব কমে না যায়। (এমদাদুল ফতওয়া, খণ্ড-১, পৃষ্ঠা-৬৪৯, মাকতাবায়ে আশরাফ দেওবন্দ থেকে প্রকাশিত)

দেওবন্দের ফতোয়ার লিঙ্ক: http://www.darulifta-deoband.com/home/ur/Jumuah–Eid-Prayers/170298

Comment As:

Comment (0)