No icon

আজ মাউশি অফিস সহায়ক পদে পরীক্ষার ফল প্রকাশের দাবীতে মানববন্ধন ; প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা।

মোঃ জুয়েল রানা,বিশেষ প্রতিনিধিঃ

২০১৩ সা‌লের নি‌য়োগ এখনও সম্পন্ন কর‌তে না পারায় আজ মানববন্ধন চল‌ছে ঢাকা প্রেস ক্লা‌বের সামনে।  মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর এর (মাউশি) অফিস সহায়ক পদের চুড়ান্ত ফলাফল প্রকাশের দাবিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা অধিদপ্তর ঘেড়াও কর্মসুচি এবং ‌ঢাকা প্রেস ক্লা‌বের সামনে অনশন পালন করা হচ্ছে আজ ।

উল্লেখ্য, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) শুন্যপদ পূরনের লক্ষ্যে গত মার্চ ২০১৩ খ্রিস্টাব্দে ২২টি পদে ১ হাজার ৯৬৫ টি শুন্যপদে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে । প্রথম পর্যায়ে লিখিত পরীক্ষা ১৪ জুন ২০১৩ খ্রিস্টাব্দে অনুষ্ঠিত হয় এবং দূর্নীতির দায়ে পরীক্ষা বাতিল হয়। আবার ০৭ জুলাই ২০১৭ খ্রিস্টাব্দে ৪র্থ শ্রেনির অফিস সহায়ক পদ সহ উচ্চমান সহকারী, হিসাব সহকারী ও বুক সর্টার পদের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। 


একই বছর সকল পদের লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করে এবং আগষ্ট থেকে নভেম্বর পর্যন্ত মৌখিক পরীক্ষা গ্রহন করে। ০৯অক্টোবর/২০১৭ ইং তারিখে উচ্চমান সহকারী, হিসাব সহকারী এই দুটি পদের ভাইবা পরীক্ষার চূড়ান্ত রেজাল্ট প্রকাশ করে। কিন্তু দুঃখের বিষয় একই তারিখে (১৫ মাস পার হলেও) লিখিত ও ভাইবা দেওয়া হলেও অফিস সহায়ক/এমএলএসএস ও বুক সর্টার পদের মৌখিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করে নাই মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। 

একই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে বাকী ২০ টি পদের নিয়োগ সম্পন্ন হলেও অফিস সহায়ক ও বুক সর্টার পদের নিয়োগ আটকে আছে। তাই চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশের দাবীতে ঢাকা প্রেসক্লাবের সামনে একাধিকবার  মাবনবন্ধন অনুষ্ঠিত হয় এবং মানববন্ধন শেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী, মাউশি মহাপরিচালক ও এ্যাটনি জেনারেল বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করেন ফলাফল প্রত্যাশীরা। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে নিয়োগ সম্পন্ন করার জন্য কয়েকবার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রালয়ের একাধিক কর্মকর্তা। 

মাউশি আইন কর্মকর্তা সাইফুর রহমান জানান দৈনিক হাজিরার ভিত্তিতে কাজ করা ৩য় ও ৪র্থ শ্রেনির কর্মচারীরা আদালতে মামলা করা কারনে নিয়োগের ফলাফল আটকে আছে।  

এদিকে ফলাফল প্রত্যাশিদের দাবী মাউশি কর্মকর্তারা কোন রকম চেষ্টা চালাচ্ছে না ফলাফল প্রকাশে এবং তারা শুধু বলে যাচ্ছে ফলাফল প্রকাশ হবে।

আন্দোলনকারী পরীক্ষার্থী শওকত হাওলাদার এই প্রতিবেদকের সাথে আক্ষেপ করে বলেন,``কি করবো ভাই আন্দোলনতো করেই যাচ্ছি, কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে। এরমধ্যে অনেক মারা গেছেন, অনেকের চাকুরীতে জয়েনিং এর বয়সই পার হয়ে গেছে।আমরা কি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সঠিক বিচার পাব না।'' 


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেক আন্দোলনকারী বলেন,``মাউশি কর্মকর্তাদের সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তারা ফোন ধরেন না আবার ফোন ধরলেও খুব খারাপ আচরন করেন ফলাফল প্রত্যাশিদের সাথে।'' 


ফলাফল প্রত্যাশিদের কয়েকজন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, সচিব প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী, সচিব শিক্ষা মন্ত্রণালয়, মহাপরিচালক মাউশি, পরিচালক ও নিয়োগ কমিটির সভাপতি মাউশিকে একাধিক বার ফলাফল প্রকাশের জন্য লিখিত আবেদন জানালেও কোন কাজ হয় নাই। 


এ নিয়ে কয়েকজন শিক্ষাবিদ বলেন যেখানে ৩য় ও ৪র্থ শ্রেনির নিয়োগে এতো সময় পার হয় সেখানে শিক্ষার মান কত নিচে চলে গেছে ভাবা যায় না।

Comment As:

Comment (0)