No icon

টিম টাইগার্সকে উৎসাহ দিতে মাঠে ব্রিটিশ এমপি রুপা হক

অনলাইন ডেস্কঃ

নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে টাইগারদের সমর্থন দিতে গ্যালারিতে ছিলে লাল-সবুজ সমর্থকদের আধিক্য। শিশু, তরুণ-তরুণী থেকে শুরু করে বৃদ্ধরাও গিয়েছিলেন মাঠে। বাদ যাননি বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ এমপি রূপা হকও।

বুধবার টাইগারদের সমর্থন দিতে ওভাল স্টেডিয়ামে গিয়েছিলেন রূপা হক। এসময় তাকে ঘিরে ব্রিটিশ বাংলাদেশিদের মধ্যে বেশ আমেজ দেখা যায়। স্টেডিয়ামে আসার জন্য রূপা হককে ধন্যবাদ জানান তারা। অনেকে এই ব্রিটিশ এমপির সঙ্গে সেলফিও তোলেন। 

ওভালে স্টেডিয়ামে বুধবার ছিল লাল-সবুজের দখলে। নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যান রস টেইলরের মন্তব্যে তা আরও স্পষ্ট হয়। গ্যালারিতে বাংলাদেশিদের উপস্থিতি দেখে রস টেইলর বলেন, ওভাল নয় যেন ঢাকা কিংবা চট্টগ্রামে খেলছি বাংলাদেশের সঙ্গে।

বুধবারের ম্যাচে বাংলাদেশ হারলেও ব্যাপক প্রশংসা পাচ্ছে। কারণ তারা লড়াই করে হেরেছে। তাদের জেতার সম্ভাবনাও ছিল কয়েকগুন।

খেলায় জিতলে টাইগারদের বাহবা আর হারলে চৌদ্ধগোষ্ঠি উদ্ধার, অতীতে টাইগার সমর্থকদের মধ্যে মাঝে মাঝে এমন প্রবণতা দেখা গেলেও বুধবারের নিউজিল্যান্ড বনাম বাংলাদেশ খেলা পরবর্তী প্রতিক্রিয়ায় এই প্রবণতা ছিলো একেবারেই অনুপস্থিত।

একটি টিম খেলায় হারার পরও সমর্থকরা বলছেন ‘আমাদের টিমের পারফরন্সে আমরা গর্বিত’ এমনটা অনেকটা ব্যতিক্রম। টাইগার সমর্থকদের প্রত্যেকেই চেহারায় অহঙ্কারের ঔজ্জ্বল্য নিয়ে বের হয়েছেন ওভাল ক্রিকেট গ্রাউন্ড থেকে।

ব্রিটেনে জন্ম ও বেড়ে উঠা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত একজন প্রফেশনাল তরুণ নাঈম মনসুর গর্ব নিয়ে ওভাল থেকে বের হয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আসলেই এরা টাইগার’। পুরো সময় জুড়ে বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম শক্তিশালী একটি টিমকে যেভাবে মোকাবিলা করেছে সাকিব-মুশফিকরা, টাইগার উপাধিতো এদেরই মানায়।'’

প্রবীন সাংবাদিক, ব্রিটেন ভিত্তিক নিউজ পোর্টাল সত্যবাণীর উপদেষ্ঠা সম্পাদক আবু মুসা হাসান এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আজকের খেলার ফলাফল বাংলাদেশের জন্য দুর্ভাগ্যজনক হলেও, স্নায়ুক্ষয়ী এই খেলার মাধ্যমে টাইগাররা বাকি ৭টি টিমকে এই ম্যাসেজটি দিতে পেরেছে যে, তারা ক্রিকেট খেলা জানে এবং যেকোন দেশকেই হারানোর ক্ষমতা রাখে।’

Comment As:

Comment (0)