No icon

আজ রাতে মুখোমুখি হচ্ছে পর্তুগাল ও ঘানা

 

স্পোর্টস ডেস্কঃ

বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১০টায় মাঠে নেমেছে দোহায় পর্তুগাল ও ঘানা। ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো তার শেষ বিশ্বকাপের শুরুটা কেমন করেন দেখতে আগ্রহের কমতি নেই ফুটবলপ্রেমীদের। 

পর্তুগালের হয়ে শেষ হুঙ্কার দিতে নিশ্চিতভাবেই মুখিয়ে থাকবেন রোনালদো। তবে তিনি ব্যর্থ হলে ব্রুনো ফার্নান্দেজ, বার্নার্দো সিলভাদের নিতে হবে গুরুদায়িত্ব। ফিনিশিংটা ঠিকঠাক করতে হবে জাও ফেলিক্সকেও।
পর্তুগিজ রক্ষণ ভেদ করতে ঘানার সবচেয়ে বড় অস্ত্র ইনাকি উইলিয়ামস। অ্যাতলেতিক বিলবাওয়ের এই ফরোয়ার্ড বেশ অভিজ্ঞও বটে। এছাড়াও আছেন ক্রিস্টাল প্যালেসের জর্ডান আয়েউ।

সম্ভাব্য লাইন আপ
-----------------------
পর্তুগাল: (৪-৩-৩): কস্তা (গোলরক্ষক), ক্যানসেলো, দিয়াস, সিলভা, মেন্দেস, ফার্নান্দেজ, কারভালহো, নেভেস, সিলভা, রোনালদো, লেয়াও।

ঘানা: (৪-১-৪-১) আতি জিগি (গোলরক্ষক), বাবা, সালিসু, আমার্টে, ল্যাম্পটে, পাটি, জর্ডান আয়েউ, আন্দ্রে আয়েউ, কুদুস, সুলেমানা, উইলিয়ামস।

বিশ্বমঞ্চে সাফল্যের বিচারে এগিয়ে থাকবে পর্তুগাল। অন্যদিকে সবশেষ ২০০৬ ও ২০১০ সালে নকআউট পর্বে গেলেও ২০১৪ সালে গ্রুপ পর্বেই থেমেছিল ঘানা। রাশিয়া বিশ্বকাপে মূল পর্বে জায়গাই করে নিতে পারেনি আফ্রিকার দলটি।

পর্তুগাল এবং ঘানা বিশ্বকাপে একবারই মুখোমুখি হয়েছে। ২০১৪ সালে সে লড়াইয়ে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর জয়সূচক গোলে ২-১ গোলে ম্যাচ জিতে নেয় পর্তুগাল।
শেষ তিনটি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয়হীন পর্তুগাল (দুটি ড্র ও একটি হার)। এ নিয়ে চতুর্থ বারের মতো বিশ্বকাপে খেলছে ঘানা। কেবল একবারই গ্রুপ পর্ব পার করতে পেরেছে দলটি (২০১০ সালে কোয়ার্টার ফাইনাল)। বিশ্বকাপে পর্তুগালের সেরা সাফল্য ১৯৬৬ সালে। কিংবদন্তি ইউসেবিওর নৈপুণ্যে সেবার তৃতীয় হয় দলটি। এই নিয়ে আট বার বিশ্বকাপে খেলছে পর্তুগাল। টানা ষষ্ঠবারের মতো। আগের পাঁচ বারের মধ্যে তিনবার গ্রুপ পর্ব পার করতে পেরেছে দলটি। বিশ্বকাপে আফ্রিকান প্রতিপক্ষের সঙ্গে পাঁচবার খেলেছে পর্তুগাল। এরমধ্যে ৩টি জয় পেয়েছে তারা। একমাত্র হারটি ১৯৮৬ সালে মরক্কোর বিপক্ষে ৩-১ গোলের ব্যবধানে হারে তারা।


 

Comment As:

Comment (0)