No icon

চিলমারীতে ইউপি সদস্যের রহস্যজনক মৃত্যু

চিলমারী কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ;

কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্যের রহস্য জনক মুত্যু হয়েছে। 

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) বিকালে চিলমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওই ইউপি সদস্যকে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। চিলমারী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আমিনুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত ইউপি সদস্যের নাম সাইফুল ইসলাম (৪৭)। তিনি উপজেলার রমনা ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড সদস্য।

নচিলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে ওই ইউপি সদস্যকে নিথর অবস্থায় তার স্ত্রী ও এলাকার এক যুবক হাসপাতালে নিয়ে আসে। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা.আসিফ জাহান জানান, ওই ইউপি সদস্যকে হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। তবে তার গলায় কাটা চিহ্ন দেখে বিষয়টি রহস্যজনক মনে হওয়ায় পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। তবে ঠিক কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা নিশ্চিত করেননি এই চিকিৎসক।

নিহতের প্রতিবেশি ও এনজিও কর্মী লাল বানু জানান, মঙ্গলবার দুপুরে ওই ইউপি সদস্যের স্ত্রী তার দুই মেয়ে সহ বাড়ির বাইরে রোদ পোহাচ্ছিলেন।

এসময় তার ছোট মেয়ে দৌড়ে এসে তাদের খবর দেন যে তার বাবা ঘরের ভেতর গলায় ফাঁস দিয়েছেন। তখন তার স্ত্রী ছুটে এসে দ্রুত গলায় ফাঁস দেওয়া রশি কেটে দেন ও তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে লাল বানু আরও জানান, নিহত ইউপি সদস্যের গলায় দেওয়া ফাঁসির রশি কাটতে গিয়ে তার গলা সামান্য কেটে যায়। তবে ঠিক কী কারণে ওই ইউপি সদস্য গলায় ফাঁস দিয়েছেন তা বলতে পারেননি লাল বানু।

রমনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজগার আলী সরকার জানান, নাইছ ইসলাম তার মেয়েদের বিয়ে নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় ছিলেন। তার তিন মেয়ের মধ্যে বড় মেয়ে বিধবা। আর দ্বিতীয় মেয়ে বারবার বিয়ের প্রস্তাব নাকচ করতে থাকায় তিনি বিষয়টি নিয়ে খুব হতাশায় ভুগছিলেন। এ কারণে তিনি মনোকষ্টে আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

চিলমারী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি।
নিহতের গলায় সামান্য কাটা চিহ্ন পাওয়া গেছে। তার মৃত্যু নিয়ে নানা গুঞ্জন শোনা গেলেও তদন্ত ছাড়া বিষয়টি নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।’ লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানা ওসি।

Comment As:

Comment (0)